ট্রাম্পের টুইটার অ্যাকাউন্ট স্থায়ীভাবে বন্ধ

57

যুক্তরাষ্ট্রের বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের অ্যাকাউন্টটি স্থায়ীভাবে বন্ধ করে দিয়েছে টুইটার কর্তৃপক্ষ।গতকাল শুক্রবার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটার এ কথা জানায়।

সিএনএনের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এর আগে যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেস ভবন ক্যাপিটলে হামলা চালানো সমর্থকদের উদ্দেশে টুইট করায় ডোনাল্ড ট্রাম্পের অ্যাকাউন্ট ১২ ঘণ্টার জন্য ব্লক করে টুইটার।

অ্যাকাউন্ট ফিরিয়ে দেওয়ার পর ট্রাম্প তার অফিশিয়াল অ্যাকাউন্ট থেকে দুটি টুইট করেন। নীতিমালা লঙ্ঘনের কারণে ওই দুটি টুইট মুছে ফেলা হয়েছে বলেও জানায় টুইটার।

টুইটারের পক্ষ থেকে জানানো হয়, ‘রিয়েলডোনাল্ড ট্রাম্প অ্যাকাউন্ট থেকে করা সাম্প্রতিক টুইটগুলো এবং চারপাশের পরিস্থিতির প্রসঙ্গ পর্যালোচনা করার পর আমরা সহিংসতা আরও উস্কে দেওয়ার ঝুঁকি বিবেচনায় নিয়ে অ্যাকাউন্টটি স্থায়ীভাবে স্থগিত করেছি।’

টুইটার আরও জানায়, ‘এই সপ্তাহের ভয়াবহ ঘটনার প্রসঙ্গে আমরা বুধবার স্পষ্ট করে জানিয়েছিলাম যে টুইটারের নীতিমালা লঙ্ঘনের করা হলে এই কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

আট কোটি ৮৭ লাখ ফলোয়ারের ওই অ্যাকাউন্টে ট্রাম্পের শেষ দুটি টুইটের প্রথমটি ছিল তার সমর্থকদের জন্য। তিনি লিখেছিলেন, ‘সাত কোটি ৫০ লাখ মহান আমেরিকান দেশপ্রেমিক যারা আমাকে ভোট দিয়েছেন, যারা আমেরিকা ফার্স্ট এবং মেক আমেরিকা গ্রেট এগেইন- এ বিশ্বাস করেন, ভবিষ্যতে তাদের কণ্ঠস্বর আরও জোরালো হবে। তাদের কোনোভাবেই অসম্মান করা হবে না কিংবা তাদের সঙ্গে অন্যায় আচরণ হবে না!’

দ্বিতীয়টিতে তিনি ২০ জানুয়ারিতে নতুন ডেমোক্র্যাটিক প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের শপথ অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন না বলে জানিয়েছেন।

তবে ট্রাম্পের ব্যক্তিগত অ্যাকাউন্ট না, রিয়েলডোনাল্ড ট্রাম্প অ্যাকাউন্টটি স্থায়ীভাবে স্থগিত করা হয়েছে বলে জানিয়েছে টুইটার। এই অ্যাকাউন্টটি স্থগিত হওয়ার পর ট্রাম্প তার ব্যক্তিগত অ্যাকাউন্ট থেকে এক টুইটে বলেন, ‘আমরা চুপ থাকবো না। টুইটার মত প্রকাশের স্বাধীনতা দিচ্ছে না।’

অদূর ভবিষ্যতে নিজস্ব সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম তৈরির বিষয় বিবেচনা করছেন বলেও টুইটে জানান তিনি। পরে সেই টুইটটিও মুছে দেওয়া হয়েছে।

Comments
[covid19 country="Bangladesh" title="Bangladesh"]