করোনায় চলে গেলেন জাপা মহাসচিব জিয়াউদ্দিন বাবলু

33

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন জাতীয় পার্টির (জাপা) মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু।

আজ শনিবার (২ অক্টোবর) সকাল ৯টা ১২ মিনিটে রাজধানীর শ্যামলীর বাংলাদেশ স্পেশালাইজড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন। তিনি সেখানে লাইফ সাপোর্টে ছিলেন।

জাতীয় পার্টির প্রেসসচিব খন্দকার দেলোয়ার জালালী গণমাধ্যমকে জানান, কিছুক্ষণ আগে চিকিৎসকেরা জিয়াউদ্দিন আহমেদকে মৃত ঘোষণা করেছেন। তাঁরা জানিয়েছেন, তিনি সকাল সোয়া নয়টার দিকে মারা যান।

তিনি আরও জানান, গত ৪ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত সিলেট-৩ আসনের উপ-নির্বাচনে দলীয় প্রার্থী আতিকুর রহমান আতিকের পক্ষে প্রচারণা চালাতে পাঁচদিন তিনি সিলেটে অবস্থান করেন। ঢাকায় ফিরে অসুস্থবোধ করলে তার করোনা পরীক্ষা করানো হয়।

পরীক্ষায় ৬ সেপ্টেম্বর করোনা শনাক্ত হলে একই দিন রাজধানীর ল্যাবএইড স্পেশালাইজড হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাকে। অবস্থার অবনতি হলে একদিন পর তাকে নেওয়া হয় বাংলাদেশ স্পেশালাইজড হাসপাতালে। সেখানে শুরু থেকেই নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) ছিলেন তিনি।

পরিবারিক সূত্রে জানা গেছে, অ্যাজমা ও হার্টের জটিলতাসহ নানা সমস্যায় ভুগছিলেন জাপা মহাসচিব। করোনা শনাক্তের পর ফুসফুস মারাত্মকভাবে আক্রান্ত হয়।

চট্টগ্রামের সন্তান জিয়াউদ্দিন বাবলু ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইংরেজিতে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করেন। এরপর একই বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এলএলবি সম্পন্ন করেন তিনি।

তিনি ১৯৮১-৮৩ মেয়াদে ছাত্রলীগের কেন্দ্রী কমিটির সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। ১৯৮৫-৮৬ সালে শিক্ষা উপমন্ত্রী, ১৯৮৬-৮৭ সালে বন্দর ও নৌপরিবহন উপমন্ত্রী, ১৯৮৭ সালে অর্থ প্রতিমন্ত্রী, ১৯৮৭-৮৮ সালে বেসামরিক বিমান চলাচল ও পর্যটন মন্ত্রী ও ১৯৮৮-৯০ সালে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি মন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন বাবলু।

Comments
[covid19 country="Bangladesh" title="Bangladesh"]