একজন আলোকবর্তিকা

40

করোনা শুরুর প্রথমদিকের কথা। সে সময় করোনা মানে ভয়ঙ্কর কিছু। রাজধানীবাসীসহ পুরো দেশবাসী আতংকে। অনেক লোক বেকার হলেন। গরীব লোকজন রাস্তায় বের হয়ে আসলো খাবারের জন্য। চারিদিকে আতংক। এরই মাঝে প্রধানমন্ত্রী নির্দেশ দিলেন অসহায়দের পাশে দাঁড়াতে। তার নির্দেশমতে মানবসেবায় নিজেকে নিমগ্ন করলেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক তারিক সাঈদ।

 

এমনিতেই,নিজের পরিবারে দুটো ফুটফুটে বাচ্চা ও সহধর্মীনীকে সময় দেন খুব কম। তার উপর করোনা সময়ে আর্তমানবতার সেবায় নিজেকে পুরোপুরি নিয়োজিত করলেন। শুধু দলের পক্ষে নয় নিজের উদ্যোগে অসহায়দের মাঝে মাস্ক,খাবার,বস্ত্র,ঔষুধ বিতরন করলেন। ঢাকা মহানগর দক্ষিণের অর্ন্তগত প্রত্যেকটি থানা-ওয়ার্ডে নিজে সরেজমিনে যেয়ে তদারকি করতেন যাতে অসহায় মানুষগুলো সাহায্য পায়। এভাবে শুধু দক্ষিণ নয় পুরো ঢাকাতেই তারিক সাঈদ অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ান। ঢাকার পাশাপাশি নিজ জেলা ফরিদপুর যান। সেখানেও ত্রান বিতরন করেন।

 

অবশ্য তারিক সাঈদ এগুলো ত্রান বলতে নারায। তিনি বলেন,‘আসলে এগুলো ত্রান নয়। এগুলো উপহার।’
এভাবেই চলছিল। করোনাকালে সবাই যখন নিজের রক্ষায় ব্যস্ত তখন তারিক সাঈদ ব্যস্ত ছিলেন মানুষের সেবা নিয়ে। তিনি বলতেন,আমার উপর যে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে,আমি সে দায়িত্ব অক্ষরে অক্ষরে পালন করবো। একবারও নিজের পরিবারের কথা চিন্তা করেননি।

 

গেল সপ্তাহ থেকেই তিনি অসুস্থ ছিলেন। করোনা টেস্ট করালে প্রথমে নেগেটিভ আসলেও পরে বোঝা যায় তিনি করোনায় আক্রান্ত। এখন তিনি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। তার মধ্যেও তিনি নেতাকর্মীদের নির্দেশ দিয়েছেন অসহায়দের প্রতি চলমান সাহায্যপ্রদান যেন বন্ধ না হয়।

করোনার এই মহামারীতে আলোকবর্তিকা হয়ে মানুষের পাশে ছিলেন তারিক সাঈদ। সবার কাছে দোয়া চেয়েছেন তিনি। যেন সুস্থ হয়ে আবার মানবসেবায় নিজেকে নিয়োজিত করতে পারেন। ফিরতে চান তার কর্মীদের মাঝে।

 

Comments

Bangladesh

Confirmed
407,684
+1,320
Deaths
5,923
+18
Recovered
324,145
Active
77,616
Last updated: অক্টোবর ৩১, ২০২০ - ১০:০৩ পূর্বাহ্ণ (+০০:০০)