ইসরায়েলি জেলখানায় সুড়ঙ্গ খুঁড়ে পালিয়েছেন ৬ ফিলিস্তিনি

7

ইসরায়েলি কর্তৃপক্ষ তাদের জেলখানা থেকে পালিয়ে যাওয়া ফিলিস্তিনি মুক্তি সংগ্রামী সংগঠনের ছয় কর্মীকে খুঁজছে। প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে, তারা জেলের ভেতরে সুড়ঙ্গ খুঁড়ে পালিয়েছেন। আজ সোমবার সিএনএন জানিয়েছে, ইসরায়েলের গিলবোয়া জেলখানা থেকে তারা পালিয়েছেন।

ইসরায়েলি সংবাদ সংস্থা জেরুজালেম পোস্ট জানিয়েছে, শিন বেট (ইসরায়েলের নিরাপত্তা সংস্থা), সীমান্ত পুলিশ, ইসরায়েলি প্রতিরক্ষা বাহিনীর (আইডিএফ) দুটি সেনাদল এবং বিশেষ বাহিনীর সদস্যরা পলাতকদের খুঁজছেন। ইসরায়েলি পুলিশ জানিয়েছে, তাদেরকে খুঁজে বের করতে ড্রোন ও হেলিকপ্টারও ব্যবহার করা হচ্ছে।

ইসরায়েলের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে একটি সুড়ঙ্গের প্রবেশপথের ছবি দেখা যাচ্ছে। এই সুড়ঙ্গ দিয়ে তারা পালিয়েছেন বলে ইসরায়েলের স্থানীয় গণমাধ্যম জানালেও পুলিশ এখনও এর সত্যতা নিশ্চিত করেনি।

ফিলিস্তিনের প্রিজনার সাপোর্ট গ্রুপের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, পলাতকদের একজন হচ্ছেন ফিলিস্তিনি রাজনৈতিক দল ফাতাহের সামরিক কমান্ডার জাকারিয়া জুবেইদি। বাকি পাঁচ জন হচ্ছেন- মোন্ডাল আইনফাত, মাহমাদ আরদিয়া, মোহাম্মদ আরদিয়া, ইয়াকুব কাদারী ও ইহাম কামাগি। তারা প্যালেস্টাইনি ইসলামিক জিহাদ (পিআইজে) নামক একটি দলের সদস্য।

ইসরায়েলি পুলিশের একজন সিনিয়র কর্মকর্তা জানান, এটি তাদের দেশে সংঘটিত এ ধরনের ঘটনার মধ্যে সবচেয়ে ভয়াবহ। ছয় জন কয়েদি উচ্চ নিরাপত্তার কারাগারে ছিলেন এবং তাদের সবাই ইসরায়েলে সন্ত্রাসী হামলা চালানোর অভিযোগে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ভোগ করছিলেন। কিন্তু তারা তাদের হাজতের বাথরুমের নিচ দিয়ে সুড়ঙ্গ খুঁড়ে পালাতে সক্ষম হয়েছেন।

পলাতক ছয় ফিলিস্তিনি একই হাজত কক্ষে থাকতেন। তারা একটি পোস্টারের পেছনে লুকিয়ে রাখা জং ধরা চামচ দিয়ে সুড়ঙ্গটি খুঁড়েছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। অন্তত দুই মাস ধরে তারা খননের কাজ করেন।

পিআইজে একটি বিবৃতিতে জানিয়েছে, হাজত থেকে পালানো একটি বড় ধরণের বীরত্বের কাজ এবং এটি ‘ইসরায়েলি সৈন্য ও তাদের সমগ্র শাসন ব্যবস্থার বিরুদ্ধে একটি বড় ধরনের আঘাত’।

Comments
[covid19 country="Bangladesh" title="Bangladesh"]