আজ ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর সিটি স্ক্যান করা হয়েছে

32

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী এখনো শারীরিকভাবে বেশ দুর্বল। আজ বৃহস্পতিবার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) তার সিটি স্ক্যান করা হয়েছে।

আজ গণস্বাস্থ্য সমাজভিত্তিক মেডিকেল কলেজের উপাধ্যক্ষ ডা. মুহিব উল্লাহ খোন্দকার ও গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. ফরহাদ এই তথ্য জানিয়েছেন।

তারা বলেন, ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বর্তমানে শারীরিকভাবে বেশ দুর্বল। আজ সকালে উঠে নাশতা করেছেন। মাথা ও বুকের সিটি স্ক্যান করানো হয়েছে বিএসএমএমইউতে।তিনি আবার গণস্বাস্থ্য নগর হাসপাতালে ফিরে এসেছেন। আশা করছি আজকেই সিটি স্ক্যানের ফল পাব। গণস্বাস্থ্য নগর হাসপাতাল থেকে বিএসএমএমইউতে আনা-নেওয়ার সময় শারীরিক দুর্বলতার কারণে অন্যের সহায়তা নিয়ে তাকে হাঁটতে হয়েছে।

এর আগে, গতকাল ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর সঙ্গে কথা হয়েছিল। গলার ইনফেকশনের কারণে তখন তার কথা বলতে বেশ কষ্ট হচ্ছিল। তিনি বলেন, ‘শরীরটা খুব ভালো না। খুব ধীরে ধীরে উন্নতি হচ্ছে।’ সবার কাছে দোয়া চেয়ে তিনি বলেন, ‘অনেকগুলো কাজ বাকি আছে। করোনা থেকে সুস্থ হয়ে কেবল কাজ শুরু করতে যাচ্ছিলাম, তখনই আবার দুর্বল হয়ে পড়লাম।’

‘আর গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র উদ্ভাবিত কিট নিয়ে যা করা হচ্ছে, এতে আমি খুবই মর্মাহত। এসব কারণে মানসিক কষ্টেও আছি’, বলেন ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী।

ডা. মুহিব উল্লাহ খোন্দকার ও মো. ফরহাদ আরও জানান, অসুস্থতার কারণে অনেক আগে থেকেই ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীকে সিটি স্ক্যানের কথা বলা হচ্ছিল। কিন্তু, কোনোভাবেই তাকে রাজি করানো যায়নি। সেই অবস্থাতেই তিনি করোনায় আক্রান্ত হয়ে আবার (করোনা থেকে) সুস্থও হয়েছেন। বর্তমানে তার ফুসফুসের সংক্রমণ খুব ধীর গতিতে ভালো হচ্ছে। আর গলার ইনফেকশনও রয়েছে। তাই এখনো তার কথা বলা নিষেধ।

উল্লেখ্য, গত ২৫ মে ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের উদ্ভাবিত কিট দিয়ে পরীক্ষাতেই তার করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। পরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) পিসিআর পরীক্ষাতেও তার করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়।

এরপর, গত ১২ জুন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র উদ্ভাবিত অ্যান্টিজেন কিট দিয়ে পরীক্ষায় তার শরীরে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়া যায়নি। পরে আরটি-পিসিআর পরীক্ষার ফলাফলেও তার কোভিড-১৯ নেগেটিভ এসেছে। তবে, ফুসফুসের সংক্রমণ, গলার ইনফেকশনসহ আরও কিছু শারীরিক জটিলতার কারণে তিনি এখনো গণস্বাস্থ্য নগর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

Comments

Bangladesh

Confirmed
257,600
+2,487
Deaths
3,399
+34
Recovered
148,370
Active
105,831
Last updated: আগস্ট ৯, ২০২০ - ৮:১৭ অপরাহ্ণ (+০০:০০)