এবার বুকের পাজরের হাড় না কেটে বাইপাস!

17

নিজস্ব প্রতিবেদক: জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের (এনআইসিভিডি) ডা. আশরাফুল হক সিয়ামের নেতৃত্বে একটি চিকিৎসক দল সফলভাবে ৪০ বছর বয়সী মো মতিন নামের এক ব্যক্তির হৃদযন্ত্রে অস্ত্রোপচার করেছেন।

আব্দুল মতিনের বাড়ি মৌলভীবাজার।

চিকিৎসা বিজ্ঞানের পরিভাষায় এটাকে বলা হয় মিনিমাল ইনভ্যাসিভ কার্ডিয়াক সার্জারি (এমআইসিএস)। এই পদ্ধতিতে বুক না কেটে ছোট ছোট ছিদ্রের মাধ্যমে হৃদযন্ত্রের অস্ত্রোপচার করা হয়।

বাংলাদেশে দ্বিতীয়বার এই পদ্ধতিতে কোনো সরকারি হাসপাতালে অপারেশন করা হলো। আর এই বিকল্প পদ্ধতির অপারেশনের যন্ত্রপাতিগুলোর জন্য “বিশেষ বরাদ্দ” দিয়েছিলেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এ বিষয়ে ড সিয়াম বলেন, পৃথিবীর উন্নত কিছু দেশের অল্পসংখ্যক হাসপাতালে এই পদ্ধতিতে অস্ত্রোপচার করা হয়ে থাকে। মতিন হার্টের ২টা ব্লক নিয়ে ২৫শে আগস্ট আমার ইউনিট সার্জারী ইউনিট-০৯ এ ভর্তি হয়। আমরা ০২ সেপ্টেমবর MIDCAB অপারেশন করে ০২ টা গ্রাফ্ট দেই। অপারেশন এর পর তৃতীয় দিনের মধ্যেই মতিন সাহেব বাড়ী যাওয়ার জন্য প্রস্তুত।

এর আগে জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের (এনআইসিভিডি) ডা. আশরাফুল হক সিয়ামের নেতৃত্বে একটি চিকিৎসক দল সফলভাবে ১২ বছর বয়সী শিশু নূপুরের হৃদযন্ত্রে অস্ত্রোপচার করেছেন। চিকিৎসা বিজ্ঞানের পরিভাষায় এটাকে বলা হয় মিনিমাল ইনভ্যাসিভ কার্ডিয়াক সার্জারি (এমআইসিএস)। এই পদ্ধতিতে বুক না কেটে ছোট ছোট ছিদ্রের মাধ্যমে হৃদযন্ত্রের অস্ত্রোপচার করা হয়।

ডাঃ আশ্রাফুল সিয়াম তার সাফল্যে সহযোগিতা করার জন্য বিশেষ ধন্যবাদ জানান এই টিমের অন্যান্য সদস্যদের। যাদের পরিশ্রম এর জন্যই এটা সম্ভব হয়েছে তারা হলেন, ডাঃ আসিফ,ডাঃ রুমু, ডাঃশাহরিয়ার,ডাঃ ইসরাত, ডাঃওয়াহিদা,ডাঃ মনজুর, ডা: মইনুল ও ডাঃ আহসানারা। পারফিউশনিস্ট ডাঃ রুবাইয়াত এবং এনেস্থেসিয়োলোজিস্ট ডাঃ আজাদ ও ডাঃ রাজু ।