বিশ্বকাপে নিষিদ্ধ হতে পারেন বিরাট কোহলি

5

স্পোর্টস ডেস্ক: সিদ্ধান্ত নিজেদের ফেবারে না গেলেই আম্পায়ারদের ওপর রীতিমতো চড়াও হচ্ছেন ভারতীয় অধিনায়ক বিরাট কোহলি। চলতি বিশ্বকাপের শুরু থেকেই এমনটি করে আসছেন ভারতীয় অধিনায়ক। আর এসব কারণে বিশ্বকাপে এক ম্যাচ নিষিদ্ধ হতে পারেন বিরাট।

মঙ্গলবার বাংলাদেশের বিপক্ষে এলবিডব্লিউর জন্য আবেদন করেন কোহলি। কিন্তু তা বাতিল করে দেন ফিল্ড আম্পায়ার। মোহাম্মদ সামির ১২তম ওভারে সৌম্য সরকারের বিরুদ্ধে এলবিডব্লিউ আপিল করে ভারত। ফিল্ড আম্পায়ার ইরাসমাস আবেদন নাকচ করে দেন।

এরপর রিভিউ আপিলও খারিজ করে দেন টিভি আম্পায়ার আলিম দার। কোহলি তাই আম্পায়ারের ওপর অনাস্থা জ্ঞাপন করে ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

শুধু বাংলাদেশ দলই নয়, এর আগে আফগানিস্তানের বিপক্ষেও আম্পায়ারের সঙ্গে বিতর্কে জড়িয়েছিলেন কোহলি। আফগানদের বিপক্ষে মাঠ আম্পায়ারের দায়িত্বে থাকা আলিম দারের প্রতি অনাস্থা জ্ঞাপন করায় কোহলির ম্যাচ ফির ২৫ শতাংশ জরিমানা করা হয়।

এবার বাংলাদেশ দলের বিপক্ষেও একই আচরণ করেছেন। আইসিসির ধারা-১ ভাঙার কারণে একজন ক্রিকেটারকে ম্যাচ ফির সর্বোচ্চ ৫০ শতাংশ জরিমানা করা হয়। দেয়া হয় সর্বোচ্চ একটি বা দুটি ডি মেরিট পয়েন্ট। কোন ক্রিকেটার যদি দুই বছরের মধ্যে চারটি ডি মেরিট পয়েন্ট পান তবে তাকে নিষিদ্ধ করা হয়।

কোহলি এরই মধ্যে দুটি ডি মেরিট পয়েন্ট পেয়েছেন। আফগান ম্যাচের জন্য একটি। অন্যটি ২০১৮ সালের ১৫ জানুয়ারি দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টেস্টে।

বাংলাদেশের বিপক্ষে আম্পায়ারদের সঙ্গে বিতর্ক নিয়ে বিরাট কোহলির ব্যাপারে আইসিসির কাছে এখনও কোনো অভিযোগের সততা পাওয়া যায়নি। তবে বিশ্বকাপের ফাইনালের আগে কোহলি যদি আরও কোনো ঘটনার জন্মদেন তাহলে এক ম্যাচ নিষিদ্ধ হতে পারেন।

সূত্র: ইন্ডিয়ান টিভি