ফাইনালের আগেই আফগানদের হারাতে চায় বাংলাদেশ

5

তিন ম্যাচের দুটিতে জিতে এরই মধ্যে ফাইনাল নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশ। ফাইনানে উঠেছে আফগানিস্তানও। প্রাথমিক পর্বের শেষ ম্যাচটি তাই এখন শুধুই নিয়মরক্ষার। তবে বাংলাদেশের জন্য এই ম্যাচটিও একটি বড় পরীক্ষা। কারণ এই সিরিজেই এই আফগানদের কাছে খুব বাজেভাবে হেরে গিয়েছিল সাকিববাহিনী। ফলে ম্যাচটি এখন সাকিবদের কাছে আলাদা গুরুত্ব পাচ্ছে।

গত বিশ্বকাপে এই আফগানদের  অনায়াসেই হারিয়েছিল বাংলাদেশ। কিন্তু এরপর একমাত্র টেস্টে বিশাল পরাজয়ের পর ত্রিদেশীয় সিরিজেও যেন অপ্রতিরোধ্য রশিদবাহিনী। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দুটি জয় তবু স্বস্তি এনে দিয়েছিল। কিন্তু স্বস্তির মাঝে কাঁটা হয়ে বিঁধছে ওই আফগানিস্তান ম্যাচ। এখন ফাইনালের আগে আফগানদের বিপক্ষে জয়খরা ঘোচাতে চায় বাংলাদেশ। 

শুক্রবার (২০ সেপ্টেম্বর) জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে অনুশীলনে মনোযোগী ছাত্রের মতোই ব্যস্ত ছিলেন টাইগাররা। এমনকি অভিষেকেই চমকে দেওয়া আমিনুল ইসলাম বিপ্লব হাতে তিন সেলাই নিয়েও তাতে সামিল হলেন। যদিও এই সিরিজে আর মাঠে নামা তার জন্য প্রায় অসম্ভব। তবু দলের সবার সঙ্গে অনুশীলনের সুযোগটা হাতছাড়া করতে চাইলেন না এই স্পিনার।

অনুশীলনে ফাঁকে পরের ম্যাচ নিয়ে নিজেদের লক্ষ্যের কথা জানালেন পেসার শফিউল ইসলাম, ‘কালকের ম্যাচটা আমাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। ভালো খেললে তা আমাদের আত্মবিশ্বাস বাড়াতে সাহায্য করবে। এই জয়ের অভ্যাস আমাদের ফাইনালের জন্য কাজে দেবে।’

শফিউল বললেন বটে। কিন্তু টি-টোয়েন্টিতে আফগানদের সর্বশেষ চার ম্যাচেই হারাতে পারেনি বাংলাদেশ। অন্যদিকে টানা ১২ ম্যাচে জয়ের রেকর্ড ঝুলিতে পুরে বেশ স্বস্তিতে আছে আফগানরা। রশিদ খান, মুজিব উর রহমানরা বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের জন্য একেকজন যেন মূর্তিমান আতঙ্ক। তবে তা সত্ত্বেও আশা দেখছেন শফিউল, ‘আমাদের আগের ভুলগুলো শুধরে নিতে পারলে আর যদি সবাই শতভাগ দিতে পারি, তাহলে ওদের হারানো অসম্ভব নয়।’

শনিবার (২১ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে প্রথম পর্বের শেষ ম্যাচে আফগানদের মোকাবিলা বাংলাদেশ।