কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল করেছে মোদী সরকার

10

সৈয়দ ইসতিয়াক রেজা: কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল করেছে মোদী সরকার। সংবিধানের ৩৭০ ধারা এবং ৩৫ ক অনুচ্ছেদ বাতিল করায় কাশ্মীরের ব্যাপারে কোন সিদ্ধান্ত নিতে এখন আর রাজ্য সরকারের অনুমতির প্রয়োজন নেই।

এ দিকে নরেন্দ্র মোদীকে সৌদি আরবের মাননীয় বাদশাহ আব্দুল্লাহ আজিজ সেদেশের সর্বোচ্চ বেসামরিক পদকে ভূষিত করেন।

সৌদি আরবের ক্রাউন প্রিন্স এমবিএস খ্যাত মোহাম্মদ বিন সালমান সম্প্রতি ভারত সফরে ১০ হাজার কোটি ডলার বিনিয়োগের চুক্তি স্বাক্ষর করেন!

অন্যদিকে প্রতিক্রিয়ায় টুঁ শব্দও করতে পারছে না ইমরান খান। কারণ কাশ্মীরের স্বাধীনতার ব্যাপারে কথা বললে বেলুচিস্তান ও পশতুদের স্বাধীনতার ব্যাপারটি সামনে চলে আসে। পাকিস্তানের দ্বিতীয় বৃহৎ নৃতাত্ত্বিক গোষ্ঠী হচ্ছে পশতুরা, অন্যদিকে বেলুচিস্তান হচ্ছে পাকিস্তানের প্রায় অর্ধেক। দীর্ঘদিন যাবত পাকিস্তানের সেনাবাহিনী দ্বারা নিষ্পেষিত হয়ে মানবেতর জীবন যাপন করে স্বাধীনতার জন্য লড়াই করছে বেলুচ ও পশতুরা।

পাকিস্তানের সেনাবাহিনীর হাতে লেগে আছে মুসলমান হত্যার রক্ত! কাশ্মীরের স্বাধীনতা নিয়ে আলোচনা করতে গেলে পাকিস্তানকে দেশের অর্ধেক ছেড়ে দিতে হবে বেলুচ ও পশতুদের কাছে!

প্রতিবেশী চীনও এ ব্যাপারে চুপ, কারণ চীনে এই মুহুর্তে ২০ লাখ উইঘুর মুসলমান কন্সেন্ট্রেশন ক্যাম্পে নির্যাতনের শিকার হয়ে বন্দি আছে। চীনের উইঘুর নীতিকে প্রকাশ্যে সমর্থন করে সৌদি ও পাকিস্তান!

কিছুদিন আগে চীন সফর করে সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান বলেন উইঘুর সমস্যা চীনের অভ্যন্তরীণ বিষয়! তাই চীন, পাকিস্তান, সৌদি আরব অন্য দেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে কিছু বলতে পারে না!

অন্যদিকে সৌদি আরব এই মুহুর্তে মধ্যপ্রাচ্যে ইয়েমেনে দুর্ভিক্ষ সৃষ্টি করে মুসলমান হত্যার উৎসবে মেতে উঠেছে। তাতেও সৌদি আরবের খায়েশ মিটছে না, এখন সে ইরানের সাথে লড়াইয়ে লিপ্ত। কাতারের উপর চলছে সৌদির নিষেধাজ্ঞা, সিরিয়ায় বাশারের বিরুদ্ধে যুদ্ধের নামে ৮ বছর ধরে চলছে রক্তের হোলি খেলা!

অন্যদিকে বাশারও ঝিম মেরে বসে নেই। জাতিসংঘে মায়ানমারের উপর চাপ সৃষ্টি করতে রোহিঙ্গা ইস্যুতে যখন ভোটাভুটি হয় তখন সিরিয়া মায়ানমারের পক্ষে ভোট দেয় চীনকে ভবিষ্যতে পাশে পাওয়ার জন্য।