সেপ্টেম্বরে মুক্তি পাচ্ছে যেসব ছবি

5

বিনোদন প্রতিবেদক: দেশীয় চলচ্চিত্রের বর্তমানে বেহাল অবস্থা । এই দুঃসময়ের মধ্যে চলতি মাসে ছবিপাড়ায় সুবাতাস বইতে শুরু করেছে। ঈদের পর কোনো ছবি মুক্তি না পেলেও এ মাসজুড়ে মুক্তি পাবে তারকাবহুল পাঁচ দেশীয় ছবি এবং কলকাতা থেকে আমদানি করা একটি ছবি। ছবিগুলো হলো- কলকাতার প্যান্থার, দেশের মায়াবতী, অবতার, গার্মেন্টস শ্রমিক জিন্দাবাদ, সাপলুডু ও পাগলামি। এর মধ্যে সেন্সর ছাড়পত্রও পেয়েছে ছবিগুলো।

আজ দেশীয় কোনো ছবি মুক্তি না পেলেও মুক্তি পাচ্ছে কলকাতার ‘প্যান্থার’। বিষয়টি নিশ্চিত করেছে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান তিতাস কথাচিত্রের কর্ণধার আবুল কালাম। তিনি বলেন, ‘সোমবার এ ছবিটি সেন্সর ছাড়পত্র পেয়েছে। সব মিলিয়ে মোট ৫৫টি হলে মুক্তি পাবে এটি।’

অংশুমান প্রত্যুষের পরিচালনায় ‘প্যান্থার’ ছবিতে জিতের বিপরীতে অভিনয় করেছেন শ্রদ্ধা দাস। ছবিতে ভারতীয় গোয়েন্দা সংস্থার আন্ডারকভার এজেন্ট হিসেবে কাজ করতে দেখা যাবে জিৎকে। মুম্বাইয়ে একটি বোমা বিস্ফোরণের ঘটনাকে কেন্দ্র করে ছবির কাহিনী। জিৎ ও শ্রদ্ধা ছাড়াও প্যান্থারে আরো দেখা যাবে কাঞ্চন মল্লিক ও সুদীপ মুখোপাধ্যায়কে। নেতিবাচক ভূমিকায় রয়েছেন সৌরভ চক্রবর্তী।

এ সপ্তাহে ‘আমার জন্মভূমি’ ছবিটি মুক্তির কথা থাকলেও শেষ পর্যন্ত মুক্তি পাচ্ছে না।

এরপরের সপ্তাহে অর্থাৎ আগামী ১৩ সেপ্টেম্বর মুক্তি পাবে ‘মায়াবতী’। প্রায় ৮০০ নাটকের নির্মাতা অরুণ চৌধুরী পরিচালিত দ্বিতীয় ছবি এটি। সিনেমার কাহিনী, চিত্রনাট্যও করেছেন তিনি। ২ ঘণ্টা ২০ মিনিট ব্যাপ্তির এ ছবির গল্প গড়ে উঠেছে ‘ওমেন ট্র্যাফিকিং’-এর মতো বিষয়কে ঘিরে। ‘মায়া’ নামের এক কিশোরী ছোটবেলায় মায়ের কাছ থেকে চুরি হয়ে বিক্রি হয় দৌলতদিয়ার রেডলাইট এরিয়ায়। সেখানে বেড়ে ওঠা, সংগীতগুরু খোদাবক্সের সঙ্গে গুরু-শিষ্য সম্পর্ক এবং ব্যারিস্টারপুত্রের সঙ্গে মায়ার প্রেম নিয়ে সংগীতনির্ভর ছবি ‘মায়াবতী’।

গত ১৭ জুন সেন্সর সনদপত্র পায় সিনেমাটি। নির্মাতা অরুণ চৌধুরী বলেন, সেন্সর বোর্ডের সম্মানিত সদস্যরা আমাদের এই চলচ্চিত্রটি দেখে মুগ্ধ হয়েছেন। এজন্য তাদের তো অবশ্যই, সেই সঙ্গে ‘মায়াবতী’ চলচ্চিত্রের সঙ্গে জড়িত প্রতিটি সদস্যকে আন্তরিক ধন্যবাদ। ১৩ সেপ্টেম্বর ছবিটি মুক্তি পাচ্ছে। এ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে তিশা এবারই প্রথম কোনো চলচ্চিত্রের নামভূমিকায় অভিনয় করলেন।

আর ‘স্বপ্নজাল’র নায়ক ইয়াশ রোহানের বিপরীতেও তিশার এটি প্রথম চলচ্চিত্র। এতে আরো অভিনয় করেছেন ফজলুর রহমান বাবু, রাইসুল ইসলাম আসাদ, দিলারা জামান, মামুনুর রশীদ, আপ্পনসহ আরো অনেকে।

একই দিনে মুক্তি পাবে হালের জনপ্রিয় নায়িকা মাহিয়া মাহি অভিনীত ছবি ‘অবতার’। মাহমুদ হাসান শিকদার পরিচালিত এ ছবির মাধ্যমে সাত মাস পর পর্দায় ফিরছেন মাহি। ছবিতে মাহির সঙ্গে আছেন নবাগত রুশো। গুরুত্বপূর্ণ একটি চরিত্রে আছেন চিত্রনায়ক আমিন খান।

সমাজের বেশকিছু অরাজকতা ছবিতে উঠে আসবে। এর মধ্যে মাদক ও সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড দেখানো হয়েছে। আর এসবের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করবেন মাহি ও আমিন খান। এটি মাহমুদ হাসান শিকদারের প্রথম চলচ্চিত্র। এতে আরো অভিনয় করেছেন মিশা সওদাগর, রাইসুল ইসলাম আসাদ, শিবা সানুসহ অনেকে।

আসছে ২০ সেপ্টেম্বর মুক্তি পাবে ‘গার্মেন্টস শ্রমিক জিন্দাবাদ’। ছবিতে অভিনয় করেছেন চিত্রনায়ক কাজী মারুফ ও লাক্স তারকা অরিন। এটি পরিচালনা করেছেন মুস্তাফিজুর রহমান বাবু।

ছবির অন্যান্য চরিত্রে অভিনয় করেছেন রুবেল, অমিত হাসান প্রমুখ। ছবির আইটেম গানে দেখা যাবে আইটেম গার্ল বিপাশা কবিরকে।

মুক্তির মিছিলে রয়েছে আলোচিত ছবি ‘সাপলুডু’। মাসের শেষ সপ্তাহে অর্থাৎ ২৭ সেপ্টেম্বর মুক্তি পাবে আরিফিন শুভ ও বিদ্যা সিনহা মিম অভিনীত সাপলুডু। বেঙ্গল মাল্টিমিডিয়া (আরটিভি) প্রযোজিত এ ছবিটি একযোগে মুক্তি পাবে ২৫টি হলে।

ছবির পরিচালক গোলাম সোহরাব দোদুল বলেন, সাপলুডুর শুটিং চলার সময় থেকেই সবার কাছ থেকে পজিটিভ সাড়া পাচ্ছি। বিশেষ করে টিজার, ট্রেলার প্রকাশের পর অনেক পরিবেশনা প্রতিষ্ঠান আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করছে। সিনেমা হল মালিকরাও চলচ্চিত্রটি প্রদর্শনের আগ্রহ প্রকাশ করেছেন। প্রথমে ২৫ হলে, পরে ধীরে ধীরে সারা দেশের বিভিন্ন প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাবে। আমার বিশ্বাস, গল্প এবং তারকানির্ভর ছবিটি সবার ভালো লাগবে।

এ মাসে মুক্তির মিছিলে সবশেষ তালিকায় রয়েছে কমল সরকার পরিচালিত ‘পাগলামী’। আসছে ২৭ সেপ্টেম্বর মুক্তি পাবে ছবিটি। এতে অভিনয় করেছেন বাপ্পী চৌধুরী ও কলকাতার শ্রাবণী রায়। পাগলামী ছবির পরিচালক কমল সরকার বলেন, পিওর রোমান্টিক ও পারিবারিক গল্পের এই ছবিটি পছন্দ হবে দর্শকদের।

চলচ্চিত্র বিশ্লেষকরা মনে করছেন, নতুন ছবিগুলো মুক্তি পেলে চলচ্চিত্রপাড়া আবার নতুন করে উদ্দীপনা ফিরে পাবে। কারণ একই মাসে এতগুলো ছবি মুক্তি পেলে সেগুলো দর্শকপ্রিয়তা অনেক বেশি পাবে। তাই এ মাসের ছবিগুলোর মুক্তির প্রতি সবারই নজর রয়েছে। যদি ছবিগুলো ব্যবসাসফল হয়, তাহলে বাংলাদেশের মন্থর চলচ্চিত্রাঙ্গন আবার ঘুরে দাঁড়াবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। তাই এ মাসকে ঘিরে অপেক্ষায় আছে পুরো ইন্ডাস্ট্রি।