মহাখালী পশু জবাইখানায় আসলে…

16

নিজস্ব প্রতিবেদক: এবার ঈদুল আজহায় রাজধানীর মহাখালী পশু জবাইখানায় পশু জবাই করতে যারা আসবেন, তাদের বেশ কয়েকটি সুবিধা দেবে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন (ডিএনসিসি)।

বৃহস্পতিবার ডিএনসিসি মেয়র সংবাদ সম্মেলনে বলেন, এই প্রথমবারের মতো ডিএনসিসি কর্তৃক মহাখালী পশু জবাইখানায় যারা কোরবানির পশু নিয়ে আসবেন, তাঁদের পশু জবাই ও মাংস প্রস্তুত বাবদ ২৫ শতাংশ খরচ বহন ডিএনসিসি বহন করবে। তাছাড়া ডিএনসিসির গাড়ি দ্বারা মাংস বাড়ি পৌঁছে দেয়ার ব্যবস্থা করা হবে।

তিনি জানান, এ বছর ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনে অন্তর্ভুক্ত নতুন এলাকাসহ আনুমানিক ৩ লক্ষাধিক পশু কোরবানি দেয়া হবে, যা গত বছরের তুলনায় প্রায় ৬৮ হাজার বেশি।

মেয়র বলেন, কোরবানির পশু জবাই করার জন্য ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন কর্তৃক এ বছর মহাখালী পশু জবাইখানাসহ ২৭৩টি স্থানে নগরবাসীকে পশু কোরবানি দেয়ার সুব্যবস্থা রাখা হয়েছে। এছাড়া কোরবানি করা যাবে এ রকম ৪০০টি স্থান চিহ্নিত করা আছে।

রাস্তার উপর কিংবা ড্রেনের পাশে কোরবানি না করার জন্য বিশেষ সচেতনতামূলক ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়েছে।

কোরবানির জন্য সর্বমোট ১০০জন ইমাম ও ২০০ জন মাংস প্রস্তুতকারীকে প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হয়েছে  বলেও জানান তিনি।

গুলশানে নগর ভবনে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আব্দুল হাই, প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা ক্যাপ্টেন মো. মঞ্জুর হোসেন, প্রধান প্রকৌশলী ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সাঈদ আহমেদ, ওয়ার্ড কাউন্সিলর জাকির হোসেন বাবুল, প্যানেল মেয়র আলেয়া সারোয়ার ডেইজি।