প্রধানমন্ত্রীকে স্বপ্নের কথা লিখে পাঠাল ৬০০ শিক্ষার্থী

16

কেউ হতে চায় ডাক্তার, কেউবা ইঞ্জিনিয়ার। আবার কেউ ক্রিকেটার। কেউ কেউ আবার নিজের এলাকার জন্য অনেক কিছুই দাবি করেছে। এমন করে হলুদ পোস্টকার্ডে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিজেদের স্বপ্নের কথা লিখেছে কৃতী শিক্ষার্থীরা।

শনিবার সকাল থেকেই খুদে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের পদচারণায় মুখর হয়ে ওঠে ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার বলিদাপাড়া এলাকার হাঙ্গার ফ্রি ওয়ার্ল্ড চত্বর। অনুষ্ঠানে কালীগঞ্জ উপজেলার ৬০০ শিক্ষার্থীকে সার্টিফিকেট ও ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।

এ সময় শিক্ষার্থীদের নাম রেজিস্ট্রেশন হওয়ার পর সবার হাতে দেয়া হয় একটি করে হলুদ খাম।

খামের এক পাশে প্রধানমন্ত্রীর ঠিকানা দেয়া। এর পর নিজেদের স্বপ্নে কথা লিখতে থাকে কৃতী শিক্ষার্থীরা। এখান থেকে শিক্ষার্থীরা ৬০০ পোস্টকার্ডে নিজ নিজ স্বপ্ন লিখে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বরাবর পাঠিয়ে দেয়। এসব খুদে শিক্ষার্থীরা বড় হয়ে কী হতে চায় এবং কেমন বাংলাদেশ গড়তে চায় তা লিখে পাঠায়।

তোমার শানিত মেধায় গড়ে উঠুক ক্ষুধামুক্ত মানবিক বাংলাদেশ– এই স্লোগান নিয়ে ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে জেএসসি ও পিইসি ২০১৯ পরীক্ষায় জিপিএ-৫ প্রাপ্ত প্রায় ৬০০ কৃতী শিক্ষার্থীকে সংবর্ধনা প্রদান করেছে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন হাঙ্গার ফ্রি ওয়ার্ল্ড ও ইয়ুথ অ্যাগেইনস্ট হাঙ্গার।

অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে ৬০০ শিক্ষার্থী পোস্টকার্ডে বড় হয়ে কী হবে সেই স্বপ্ন লিখেছে।

পিএসসি পরীক্ষায় কালীগঞ্জ উপজেলায় প্রথম স্থান অধিকার করা মিহিন রহমান পোস্ট কার্ডে লেখে– আমার স্বপ্ন হলো যে, আমি ঝিনাইদহ-৪ আসনের কালীগঞ্জ ভূষণ স্কুল রোডে বাস করি। অত্র এলাকায় একটি বৃহৎ পাঠাগার স্থাপন করা হোক। এতে শিক্ষার্থীদের জ্ঞান সমৃদ্ধ হবে। যদি আমার স্বপ্ন পূরণ হয়, তা হলে আপনার নিকট চির কৃতজ্ঞ থাকব।

শনিবার সকাল সাড়ে ১০টায় বলিদাপাড়ার সুনিতেন পাঠশালা চত্বরে আয়োজিত অনুষ্ঠানে কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার সুবর্ণা রানী সাহার সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কালীগঞ্জ পৌরসভার মেয়র আশরাফুল আলম আশরাফ, ইব্রাহিম মেডিকেল কলেজের অধ্যাপক ডা. আবু সাইদ, কালীগঞ্জ উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান শিবলী নোমানী, হাঙ্গার ফ্রি ওয়ার্ল্ডের কান্ট্রি ডিরেক্টর আতাউর রহমান মিটন, এরিয়া কোঅডিনেটর সোহেল আহমেদ খান।