এইডস্ আক্রান্ত তরুণীকে ধর্ষণ করে বিপাকে…!

7

ভয়ে তরুণী মুখ খুলতে পারছিলেন না। মুখ খুললে মেরে ফেলার হুমকিও দিচ্ছিলো ধর্ষক। ঠিক তখনই ট্রেনের ওই কামরায় রুটিন টহল দিতে ঢুকে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর দুই সদস্য। এ ঘটনা দেখেই চমকে ওঠে তারা। সঙ্গে সঙ্গে তরুণীকে উদ্ধার করা হয়। একজনকে ধরার সময় অন্যজন চম্পট দেয়। তবে বেশিদূর যেতে পারেনি। পিছু ধাওয়া তাকেও আটক করতে সক্ষম হয় পোশাকধারীরা। আটক দুজনের নাম বীরেন্দ্র প্রকাশ সিং ও দীপক সিং।

ঘটনাটি ঘটে ভারতের পাটনা-ভাবুয়া ইন্টারসিটি এক্সপ্রেসে। মেয়েটিকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পরে যে খবর বেরিয়ে আসে, তাতে অবাক না হয়ে উপায় নেই। চিকিৎসকরা জানান, ২২ বছর বয়েসী ওই তরুণী এইডস্‌ রোগে আক্রান্ত। এ খবর শুনে তো ধর্ষণে অভিযুক্তদের আত্মা বেরিয়ে যাওয়ার দশা!

এ খবর শুনে তাদের মধ্যে মৃত্যুভয় চেয়ে বসেছে বলে জানিয়েছে ভারতের পুলিশ। জেল হাজতে আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছে ওই দুই যুবক। তবে এখনও তাদের মেডিকেল টেস্ট করা হয়নি। মেডিকেল টেস্টের পর জানা যাবে এইডস্ সংক্রমিত হয়েছে কী না।

ভারতের স্থানীয় সংবাদ মাধ্যম থেকে জানা যায়, ওই তরুণী ভারতের বিহারের কাইমুর জেলার বাসিন্দা। তিনি তার স্বামীকে কয়েক বছর আগে হারিয়েছেন। গয়ার অ্যান্টি- রেট্রোভিয়াল থেরাপি সেন্টারে তার এইডসের চিকিৎসা চলছিলো। টেস্ট রুটিন করাতে তিনি ট্রেনে চেপে গয়া যাচ্ছিলেন।

ধর্ষণের শিকার নারীর ভাষ্যমতে, তিনি যে কামরায় উঠেছিলেন, সেটা প্রায় ফাঁকাই ছিলো। এ সুযোগ কাজে লাগায় ওই দুই যুবক। তারা নারীর ওপর শারীরিক নির্যাতন চালায়। তাদের কথা না শুনলে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকিও দেয়।